যতই সময় যাচ্ছে বলিউড সিনেমা রাজনীতি জালে ক্রমশই হারিয়ে যাচ্ছে। ধর্মের মূল্যবোধ নিয়েই এ ছায়াজালের সূত্রপাত। ২০১৫-২০১৭ এ বছরগুলোতে বলিউড ঘরকে আলাদা করে আরেকটি ঘর নির্মাণ করতে হয়েছে রাজনৈতিক মণ্ডলে।

পদ্মাবতী ছবিকে ঘিরে বিতর্ক যেন আর কিছুতেই পিছু ছাড়ছেনা৷ যার ফলে ইতিমধ্যেই ভারি বাণিজ্যিক ভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়েছে ছবিটির।

হরিয়ানার বিজেপি নেতা সুরজ পাল আমুর বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর দায়ের করেছেন গুরগাঁওয়ের এক ব্যক্তি৷ একইসঙ্গে একটি চাপানোতর গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে যে, ২০১৮তে মুক্তি পাবে এই ছবি৷

এই বিতর্কিত ছবিটি নিয়ে মুখ খুললেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷ তিনিও এই ছবি মুক্তির ঘোর বিরোধী৷ কারণ এই ছবিটি হিন্দুদের অনুভূতিতে আঘাত করেছে৷ তিনি জানিয়েছেন, নিজের হাতে আইন তুলে নেওয়া একেবারেই উচিত নয়৷ তবে, দীপিকা পাড়ুকন কিংবা সঞ্জয় লীলা বনশালীকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া যদি অপরাধ হয়, তাহলে সঞ্জয় লীলা বনশালী আরও বড় অপরাধ করেছেন৷ কারণ তিনি ধর্মের উপর আঘাত করেছেন৷

উল্লেখ্য, পদ্মাবতী ছবিটি ১লা ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও ওই নির্ধারিত দিনে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছেনা৷ আগামী বছর সম্ভবত মুক্তি পেতে পারে ছবিটি৷ সিবিএফসির মুখ্য চেয়ারম্যান প্রসূন যোশী জানিয়েছেন, নির্ধারিত নিয়ম মেনেই এই ছবির সেন্সরশিপ চলছে৷ কোনওরকম কোনও বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য এই ছবির দৃশ্যে কাঁটছাঁট করা হবেনা বলে জানিয়ে দিয়েছেন যোশী৷