কিছুদিন আগেই আমেরিকাকে লক্ষ্য করে মিসাইল ছুঁড়েছিল উত্তর কোরিয়া৷ তারই পাল্টা জবাব দিতে আমেরিকা এবং দক্ষিণ কোরিয়া যৌথভাবে শুরু করল সামরিক মহড়া৷ ১২টি শক্তিশালী ফাইটার জেটসহ প্রায় ১০০টি এয়ারক্রাফট শুরু করল যুদ্ধের প্রস্তুতি৷

জানা গিয়েছে, পাঁচদিন যাবৎ চলবে এই সামরিক মহড়া৷ এই বিশেষ সামরিক মহড়ার নাম ভিজিলেন্ট এস৷

উত্তর কোরিয়াকে কড়া বার্তা দিতেই এই সামরিক মহড়া শুরু করতে চলেছে আমেরিকা এবং দক্ষিণ কোরিয়া৷ উত্তর কোরিয়ার প্রতিরক্ষা বিভাগ সূত্রে এমনটাই জানা যাচ্ছে৷

এই গুরুত্বপূর্ণ সামরিক মহড়াতে আমেরিকার এয়ারফোর্সের তরফ থেকে ৬ টি F-22 এবং ১৮ টি F-35 ফাইটার জেট পাঠাচ্ছে এই সামরিক মহড়াতে৷ প্রায় ১২হাজার আমেরিকান সেনাবাহিনী এই সামরিক মহড়াতে যোগ দিচ্ছে৷

B-12 বোমারু বিমানও এই এরিয়াল ড্রিলসে যোগ দিচ্ছে৷ প্রায় ২৮হাজার আমেরিকান সেনাবাহিনী দক্ষিণ কোরিয়াতে রয়েছে৷

হোয়াইট হাউস সূত্রে খবর, উত্তর কোরিয়ার একের পর এক মিসাইলের পাল্টা জবাব দিতে আমেরিকা প্রস্তুত৷ দক্ষিণ কোরিয়া উত্তর কোরিয়ার মিসাইল টেস্ট নিয়ে একেবারেই মাথাব্যাথা না থাকলেও আমেরিকা এই বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে ভাবছে৷ এমনকি দক্ষিণ কোরিয়া থেকে আমেরিকাবাসীকে সরিয়ে আনার কথাও ভাবছে আমেরিকা৷