মঙ্গলের কক্ষপথে যাবে টেসলার একটি রোডস্টার গাড়ি। স্পেসএক্স প্রধান ইলন মাস্ক বলেছেন ‘ফ্যালকন হেভি’ রকেটের প্রথম ফ্লাইটেই যাবে ওই গাড়ি। আগের ফ্যালকন ৯ রকেটের পরবর্তী সংস্করণ হল ‘ফ্যালকন হেভি’। আগেরটির চেয়ে শক্তিশালী এই রকেটটি। ভবিষ্যতে এই রকেটে করে চাঁদ ও মঙ্গল গ্রহে মিশন পরিচালনা করার প্রয়াশ করছে স্পেসএক্স।

শনিবার এক টুইটে মাস্ক বলেন, “সামনের মাসে অ্যাপোলো ১১ লঞ্চ প্যাড থেকে ফ্যাকন হেভি উতক্ষেপণ করা হবে। এতে দ্বিগুণ থ্রাস্ট থাকবে। যেভাবেই দেখা হোক না কেন, এটি নিশ্চিতভাবেই উত্তেজনাপূর্ণ হবে।”

মাস্ক আরও বলেন, “এতে মালামাল হিসেবে থাকবে টেসলা রোডস্টার যা ‘স্পেস অডিটি’ পরিচালনা করবে এবং গন্তব্য হবে মঙ্গল কক্ষপথ। গভীর মহাকাশে শত বছর থাকবে যদি এটি উর্ধগমনের কারণে বিস্ফোরিত না হয়।”

২০১৩ বা ২০১৪ সালে প্রথমবার ওড়ার কথা ছিল ফ্যালকন হেভি’র। কিন্তু এবার তা হতে যাচ্ছে ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে। সম্প্রতি চার আসনের রোডস্টার ২ স্পোর্টস গাড়ি উন্মোচন করেছে টেসলা। এটিকে বলা হচ্ছে বর্তমান বিশ্বের দ্রুততম গাড়ি। আপাতত প্রটোটাইপ আনা হয়েছে গাড়িটির। এই মডেলেরই একটি গাড়ি চড়বে ফ্যালকন হেভি-তে। ফ্যালকন হেভি’র শক্তির জোগানদাতা তিনটি কোরই পুনরুদ্ধার করার পরিকল্পনাও রয়েছে স্পেসএক্স-এর। এর আগে ফ্যালকন ৮ রকেটের ক্ষেত্রে এমনটা দেখা গেছে।

চলতি বছরের শুরুতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মাস্ক বলেন, বায়ুমণ্ডল পেরোনোর প্রথম ধাপেই হয়তো ফ্যালকন হেভি কক্ষপথে পৌঁছাতে পারবে না।