বিপর্যয়ে পড়া দ্য ফারমার্স ব্যাংককে ঘুরে দাঁড়াতে তিন মাস সময় দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ব্যাংকটির পুনর্গঠিত পর্ষদের সঙ্গে বৈঠকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে এ সময় দেয়া হয়। এর মধ্যে ব্যাংকটির অবস্থার দৃশ্যমান উন্নতি না হলে পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রশাসক বসানো হবে বলে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর ফারমার্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও পর্ষদ থেকে পদত্যাগের পর পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদের সব সদস্যের সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে ব্যাংকটির পরিচালক ড. মোহাম্মদ আতাহার উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের ম্যানেজমেন্ট নতুন। বোর্ডও নতুন। তাই আমরা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের সঙ্গে পরিচিত হতে এসেছি। ব্যাংকটিকে আমরা ভবিষ্যতে কীভাবে চালাব, তা নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

তিনি বলেন, ফারমার্স ব্যাংকে যে আর্থিক সংকট তৈরি হয়েছে, তা আমরা নিজেরাই মেটাব। যে বন্ড ছাড়া হয়েছে, তাও দু-একদিনের মধ্যে পেয়ে যাব। আমরা ৫০০ কোটি টাকার দুটি বন্ড ছেড়েছি। এটা এলেই হয়ে যাবে।

পর্ষদের ভাইস চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগকারী এ পরিচালক বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছ থেকে আমরা তিন মাসের সময় পেয়েছি। এছাড়া এমডি তার অবস্থানে থাকবেন। তার ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংককে জবাব দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য,

২০১৩ সালে রাজনৈতিক বিবেচনায় অনুমোদন দেয়া নয়টি ব্যাংকের একটি দ্য ফারমার্স ব্যাংক। যাত্রার পর থেকেই ঋণ বিতরণে অনিয়ম-দুর্নীতি, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা উপেক্ষা করাসহ নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়ে ব্যাংকটি। বাংলাদেশ ব্যাংকের হস্তক্ষেপে গত সোমবার পদত্যাগ করেন ব্যাংকের চেয়ারম্যান মহীউদ্দীন খান আলমগীর। একই দিন ব্যাংকটির অডিট কমিটির চেয়ারম্যান মাহাবুবুল হক চিশতীও পদত্যাগ করেন। আরেক পরিচালক ড. মোহাম্মদ আতাহার উদ্দিন ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে সরে দাঁড়ান। এরপর বৈঠকে ব্যাংকের পরিচালক মোহাম্মদ মাসুদকে চেয়ারম্যান ও মারুফ আলমকে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়।

সোমবারের ওই পর্ষদ সভায় ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের নির্বাহী, অডিট ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটি পুনর্গঠন করা হয়। নতুন করে নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান হয়েছেন ব্যাংকের পরিচালক সাঈদ আহমেদ। তানভীর মারজান হুদাকে অডিট কমিটির চেয়ারম্যান করা হয়েছে। আর ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান হয়েছেন শরিফ চৌধুরী।

গভর্নরের সঙ্গে অনুষ্ঠিত গতকালের বৈঠকে ফারমার্স ব্যাংকের পুনর্গঠিত পর্ষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাসুদসহ সব পরিচালক অংশ নেন। ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক একেএম শামীমও এ সময় উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ ব্যাংকের তিন ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মোহা. রাজী হাসান, এসকে সুর চৌধুরী ও এসএম মনিরুজ্জামানসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তারাও বৈঠকে অংশ নেন।