বিনোদন ডেস্ক : ৬৪তম জাতীয় পুরস্কারে ‘উড়তা পাঞ্জাব’ ছবির জন্য সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেতে যাচ্ছেন আলিয়া ভাট- এমনটাই আশা করেছিলেন তার ভক্তরা। কিন্তু এ নিয়ে আক্ষেপ নেই মহেশ ভাট কন্যার!

২০১৬’র সাড়াজাগানো ক্রাইম ড্রামা ‘উড়তা পাঞ্জাব’-এ বিহারী শরণার্থী চরিত্রে আলিয়া’র অসাধারণ অভিনয় নজর কেড়েছিলো সবার। মেরি জেন ওরফে বাউরিয়া চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয়ের জন্য ভারতের সর্বোচ্চ সম্মানজনক পুরস্কার জিতবেন আলিয়া- এ আশা ছিলো অনেকেরই। আলিয়া বলছেন, জাতীয় পুরস্কার নয় বরং দর্শকপ্রিয় ছবি হিসেবে জনপ্রিয়তা পেতেই তৈরি করা হয়েছিলো এ ছবিটি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বলছে, সম্প্রতি আইফা পুরস্কারের ভোটগ্রহণ পর্বে উপস্থিত ছিলেন আলিয়া। এ সময় গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে এই তারকা বলেন, “ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার নিঃসন্দেহে অনেক বড় একটি প্রাপ্তি। কাজেই যারা এ পুরস্কার জিতেছেন তারা অবশ্যই সেই পরিমাণ পরিশ্রম ও সাধনা করেছেন। আমি যেদিন তাদের পর্যায়ে পৌঁছাতে পারবো সেদিন নিশ্চয় আমিও এ সম্মানজনক পুরস্কার পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করবো।”
এ সময় ‘ডিয়ার জিন্দেগি’ খ্যাত এই তারকা আরও বলেন, “প্রতিটি ছবিরই একটি আলাদা উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য থাকে। ‘উড়তা পাঞ্জাব’ জাতীয় পুরস্কারের জন্য তৈরি করা হয়নি। দর্শকের ছবিটি দেখে ভালো লেগেছে এবং আমার অভিনয় প্রসংশিত হয়েছে। এতেই আমি অনেক খুশি।”
সামনেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আইফা অ্যাওয়ার্ড। অনুষ্ঠান মঞ্চ মাতাতে আলিয়াকে দেখা যাবে জনপ্রিয় গানের সঙ্গে নাচতে।
এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “গত পাঁচ বছরে এবারই প্রথম ‘আইফা অ্যওয়ার্ড’-এ অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছি। আমার জনপ্রিয় গানের পাশাপাশি অন্যান্য গান মিলিয়ে নাচ তৈরি করেছি। আশা করি এবারে নিউইয়র্কের মাটিতে জমকালো এক আসর উপভোগ করবে দর্শক।”