অনলাইন ডেস্ক : রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সরকারের নেয়া ‘জনবিরোধী’ যেকোন সিদ্ধান্তের প্রতিরোধ করবে বলে জানিয়েছেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশনের সেমিনার হলে ‘রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র: কারিগরি, অর্থনৈতিক এবং পরিবেশগত ত্রিমাত্রিক বিপত্তি’ শীর্ষক এক গোলটেবিল আলোচনায় তিনি একথা বলেন।

সরকারের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, শুধু রামপাল নয়, সরকার প্রতিটি প্রকল্পের পেছনে অতিরিক্ত ব্যয় দেখায়। ১০ টাকার খরচ ৩০-৪০ টাকা দেখায়। উন্নয়নের কথা বললেও এসব প্রজেক্টের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে দুর্নীতি।

উন্মুক্ত আলোচনায় বক্তারা আরো বলেন, রামপালের মতো কয়লাভিত্তিক বিদ্যুতকেন্দ্র শুধু সুন্দরবন না, যেখানেই এই কেন্দ্র স্থাপন করা হবে সেখানকার পরিবেশই অস্বাস্থ্যকর হবে। রামপাল বাংলাদেশের অস্তিত্বকেকে বিলীন করে দিতে পারে। বক্তারা রামপালের পক্ষে-বিপক্ষে গণভোট নেয়ার আহ্বান জানান।

গোলটেবিল আলোচনার আয়োজন করে অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (অ্যাব)। এতে সভাপতিত্ব করেন অ্যাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আ ন হ আখতার হোসেন। বক্তব্য রাখেন গণস্বাস্থ্য হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, অর্থনীতিবিদ ড. মাহবুবউল্লাহ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. খন্দকার মোস্তাহিদুর রহমান, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, সাংবাদিক নেতা রহুল আমীন গাজী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. তাজমেরি এস ইসলাম, ড. সুকোমল বড়ুয়া, হাবিবুর রহমান হাবিব, শিক্ষা সম্পাদক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, আন্তর্জাতিক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা প্রমুখ।