জেলা প্রতিনিধি, জাতীয়বাণী.কম
ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহ-১ আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিমা খাতুন প্রার্থিতা ফিরে পেলেও জাতীয় পার্টির (জাপা) মো. সোহরাব উদ্দিন খানের আপিল খারিজ করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

বুধবার (২৯ জুন) দুই প্রার্থীর আপিল শুনানি শেষে এ সিদ্ধান্ত দেয় কমিশন।

ইসির আইন শাখার জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব আন্তরা ঘোষ বাংলামেইলকে বলেন, ‘স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিমা খাতুনের আপিল আবেদন গ্রহণ করেছে কমিশন, তবে জাতীয় পার্টির প্রার্থী সোহরাবের আপিল আবেদন খারিজ করা হয়েছে।

ময়মনসিংহ-১ আসনের উপনির্বাচনে ৩ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। বাছাইয়ে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করে রিটার্নিং কর্মকর্তা। পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিমা ও জাপা প্রার্থী সোহরাব প্রার্থিতা ফিরে পেতে রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল কররে। গতকাল মঙ্গলবার এ আপিলের প্রেক্ষিতে বুধবার শুনানি শেষে এ সিদ্ধান্ত দেয় কমিশন।

প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ায় এ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জুয়েল আরেংয়ের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে ভোটে লড়বেন স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিমা খাতুন।

সাবেক স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মজিবুর রহমান ফকির ও প্রমোদ মানকিনের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া গত ৯ জুন ময়মনসিংহ-১ ও ৩ আসনে উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে কমিশন।

ইসির ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ২৯ জুন পর্যন্ত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিন ছিল। বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে এবং ভোটগ্রহণ হবে আগামী ১৮ জুলাই।
ময়মনসিংহ-১ এবং ময়মনসিংহ-৩ আসনের উপনির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের পর ৮ জন প্রার্থী বৈধতা পেয়েছেন।

বৈধতাপ্রাপ্ত ৮ প্রার্থী হলেন: ময়মনসিংহ-১: আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জুয়েল আরেং ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিমা খাতুন।

ময়মনসিংহ-৩: মো. আজিজুল হক (স্বতন্ত্র), নাজিম উদ্দিন আহমেদ (আওয়ামী লীগ), মো. শামসুজ্জামান (জাতীয় পার্টি), মো. আবু তাহের খান (ইসলামী ঐক্যজোট), নাজনীন আলম (স্বতন্ত্র) ও মো. আব্দুল মতিন (ন্যাপ)।