ক্রীড়া প্রতিবেদক: সফরের আগেই রবিচন্দ্রন অশ্বিনের কাছ থেকে শেখার ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলে মেহেদী হাসান মিরাজ। সুযোগ পেলেন হায়দরাবাদ টেস্টের পঞ্চম ও শেষ দিনে। বাংলাদেশের তরুণ অফ স্পিনার মনে করছেন, ছোট্ট সেই আলোচনা তার ভবিষ্যতের জন্য খুব সহায়ক হবে।

ভারত সফর শেষে মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে দেশে ফিরে বাংলাদেশ দল। বিমানবন্দরে দলের প্রতিনিধি হয়ে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন মিরাজ। জানালেন, ম্যাচ শেষে ভারতের ড্রেসিংরুমে গিয়ে অশ্বিনের সঙ্গে কথা বলেছিলেন।
“অশ্বিন আমাকে বলেছে, বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটে ধৈর্য ধরে খেলতে হয়। আমি তার বিভিন্ন ডেলিভারি সম্পর্কে জানতে চেয়েছি। আমাকে কিছু টিপস দিয়েছে। ও কিভাবে কি করে, কিভাবে মেইন্টেইন করে সেটা আমাকে জানিয়েছে।”

“ও আমাকে উৎসাহ দিয়েছে। সে বলেছে আমার সামনে লম্বা ও সম্ভাবনাময় আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার রয়েছে। আমাকে কঠোর পরিশ্রম করার পরামর্শ দিয়েছে।”

হাই আর্ম অ্যাকশনের জন্য ভালো জায়গায় বল ফেলতে পারেন মিরাজ। ১৯ বছর বয়সী এই অফ স্পিনার তার বোলিংয়ে আরও নতুন অস্ত্র যোগ করতে উন্মুখ।

“আমার বোলিংয়ে আরও বৈচিত্র্য যোগ করতে চাই। বোলিংয়ের গতিতেও বৈচিত্র্য আনতে চাই। আমি অশ্বিনের সাথে এই ব্যাপারে কথা বলেছি। সে আমাকে নিজের শক্তির জায়গায় অনড় থাকতে বলেছে। যেভাবে বল করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি সেভাবেই বল করতে বলেছে।”

নতুন যা শিখলেন তা কাজে লাগানোর সুযোগও শিগগিরই মিলবে মিরাজের। আগামী মাসে শ্রীলঙ্কা সফরে যাবে বাংলাদেশ।

২০৮ রানে হারা ম্যাচে দুই ইনিংসেই অশ্বিনের বল সামলানোর সুযোগ হয় মিরাজের। প্রথমবার ২৭ বলে ৫টি চারে করেছিলেন ২১ রান। সেবার দারুণ সব শটে চমকে দেন এই তরুণ। দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ বল খেলে করেন ২ রান।

আইসিসি টেস্ট অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ক্রিকেটারের বিপক্ষে বল হাতেও ভালো করেন মিরাজ। ৮ বল করে ২ রান দিয়ে অশ্বিনের উইকেটটি নেন।