বার্সেলোনা থেকে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইনে (পিএসজি) যাওয়ার পর এডিনসন কাভানির সঙ্গে তো রীতিমতো যুদ্ধই বেধে গিয়েছিল নেইমারের। ফ্রি কিক, পেনাল্টি কে নেবেন, তা নিয়ে কয়েকবার দ্বন্দ্বে জড়িয়েছেন এ দুই তারকা। তবে ধীরে ধীরে ভালোই জমে উঠছে নেইমার-কাভানি জুটি। পিএসজির জয়ে দুজনেই করে চলেছেন একের পর এক গোল।

গত রোববার ফ্রেঞ্চ লিগের ম্যাচে মোনাকোর বিপক্ষে পিএসজির ২-১ গোলের জয়ে নায়ক ছিলেন নেইমার-কাভানি। তাঁরাই করেছিলেন দুটি গোল। চার দিন পর ট্রোয়েসের বিপক্ষেও গোল করেছেন এই দুই তারকা। এবার পিএসজি পেয়েছে ২-০ ব্যবধানের জয়।

নিজেদের মাঠে প্রথমার্ধে কোনো গোলের দেখা পায়নি পিএসজি। দ্বিতীয়ার্ধেও বেশ খানিকটা সময় চলে গিয়েছিল গোলশূন্য অবস্থায়। অবশেষে ৭৩ মিনিটের মাথায় স্কোরশিটে নাম লেখান নেইমার। পিএসজিকে এগিয়ে দেন ১-০ গোলে। খেলা শেষ হওয়ার আগমুহূর্তে গোল করেন কাভানিও। শেষমুহূর্তে কাভানির এই গোলে ভর করে পিএসজি মাঠ ছেড়েছে ২-০ গোলের জয় নিয়ে।

নেইমারকে পেয়ে ফরাসি লিগ শিরোপা জয়ের পথে অনেকখানি এগিয়ে গেছে পিএসজি। ১৫ ম্যাচে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে আছে ফ্রান্সের সবচেয়ে সফল এই ক্লাব। দ্বিতীয় স্থানে থাকা মার্সেইয়ের সঙ্গে তাদের ব্যবধানও অনেক। ১৫ ম্যাচ খেলে মার্সেইয়ের সংগ্রহ ৩১ পয়েন্ট। ২৯ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে আছে লিঁও ও মোনাকো।